বিস্তারিত : ওয়েবসাইট খুলে কিভাবে টাকা আয় করা যায়

বিস্তারিত : ওয়েবসাইট খুলে কিভাবে টাকা আয় করা যায়
বৃহস্পতিবার, ৪ আগস্ট, ২০২২
ওয়েবসাইট খুলে কিভাবে টাকা আয়

আস্‌সালামু আলাইকুম! আশা করি আল্লাহ এর অশেষ রহমতে আপনারা সবাই ভালো আছেন।আমিও আপনাদের দোয়াই ভালো আছি। আজকের নতুন টপিকে আপনাকে স্বাগতম! আজকে আপনাদের দেখাবো কিভাবে ওয়েবসাইট খুলে কিভাবে টাকা আয় করা যায় তা বিস্তারিত।

আমরা অনেকেই ওয়েবসাইট তৈরি করে টাকা আয় করতে চাই। তবে পুরোপুরি মাধ্যম গুলো না জানার কারণে আমরা অনেকেই শুরু করতে পারিনা।

ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিভিন্ন ভাবে ইনকাম করা সম্ভব। তবে মেইন যেসব মাধ্যমে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বেশি ইনকাম করা হয় তা নিয়েই আলোচনা করবো।

ওয়েবসাইট খুলে কিভাবে টাকা আয় করা যায়

ওয়েবসাইট খুলে অনেকভাবে আয় করা যায়। শুধু আপনার একটা ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে। ওয়েবসাইট থেকে যদি ইনকামই না হত তবে সবাই টাকা খরচ করে এত এত ওয়েবসাইট বানাতো না।

ওয়েবসাইট দিয়ে আপনার আইডিয়া ব্যবহার করেও বিভিন্ন মাধ্যমে ইনকাম করতে পারবেন। তবে আপনার চাই সঠিক মার্কেটিং ও বিজনেস মাধ্যম।


ওয়েবসাইটে নির্দিষ্ট স্পেস ভাড়া দেওয়ার মাধ্যমে আয়

আপনার যদি ওয়েবসাইট থাকে তখন আপনার ওয়েবসাইটের আসল কন্টেন্ট এর পাশাপাশি অনেক ফাঁকা জায়গা থাকবে। ওই সকল জায়গায় নির্দিষ্ট কোনো কম্পানির কাছ থেকে টাকার বিনিয়ময়ে এড দিতে পারবেন।

আপনি চাইলে জায়গার মাপ অনুযায়ী টাকা দাবি করতে পারবেন ও এডভার্টাইজ ব্যানার বানিয়ে ওখানে দিয়েও ইনকাম করতে পারবেন।

অনেক ক্ষেত্রে আপনার ওয়েবসাইটের এমন স্পেস বিক্রি করে মাসে ৫-৩০ হাজার টাকা ইনকাম করা সম্ভব। (যদি সাধারন ভালো মানের ওয়েবসাইট থাকে)

Affiliate করে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ইনকাম

ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অনেকে শুধু এফিলিয়েট করে অনেক টাকা ইনকাম করে। যদিও বাংলাদেশে এফিলিয়েট করে ইনকাম করার ওয়েবসাইট অনেক কম।তবে আপনি চাইলে বাইরের দেশের প্রোডাক্ট সেল করে দেওয়ার মাধ্যমে আয় করতে পারবেন।

তাই আপনি যে ধরণের প্রোডাক্ট সেল করতে চান যেদেশের জনগন ওই প্রোডাক্ট কিনতে পারে তাদের টার্গেট করে মার্কেটিং করতে হবে।

আপনার ওয়েবসাইট সেভাবেই ডিজাইন করতে হবে।

গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে ইনকাম

যদি আপনি খুব সহজে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ইনকাম করতে চান তবে গুগল এডসেন্স সবচেয়ে ভালো মাধ্যম।
গুগল এডসেন্স এই কারণে ভালো মাধ্যম, গুগল এডসেন্স ব্যবহার করলে কার এড দিবেন আর কার এড দিবেন না। কোথায় কোন এড বসাবেন এই গুলো নিয়ে ঝামেলা পোহাতে হবেনা।

পেমেন্ট নিয়ে কোনো ঝামেলা হবেনা।যদিও কিছুটা কম ইনকাম হবে তবুও আপনার ঝামেলা হবেনা।

গুগল এডসেন্স রয়েছে রেসপন্সিভ এড যার কারনে আপনার ইউজারের সকল ডিভাইসে সুন্দর এড দেখানো সম্ভব। এতে ইনকামও বৃদ্ধি পায়।

পেইড কন্টেন্ট বিক্রি করার মাধ্যমে আয়

অনেকে বিভিন্ন প্রকার দরকারি কন্টেন্ট ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিক্রি করে থাকে। চাইলে আপনিও এমন কিছু তৈরি করুন যা সবার দরকার, তারপর তা ওয়েবসাইটে লক করে রেখে বা সেল করার মাধ্যমে আয় করতে পারবেন।

আপনি যদি কোনো বিষয়ে এক্সপার্ট হন তবে সেই বিষয়ে কোর্স তৈরি করে তা বিক্রি করে ইনকাম করতে পারবেন।
এমন অনেক ডিজিটাল কন্টেন্ট আছে চাইলেই তা আপনি বানিয়ে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিক্রি করতে পারবেন।

ওয়েবসাইটে আপনার স্কিল শেয়ার করে ফ্রীল্যান্সিং করে আয়

আপনার যদি কোনো স্কিল থাকে যেমন, ওয়েব ডিজাইন, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, গ্রাফিক্স ডিজাইন, সহ ভিডিও এডিটিং তাহলে আপনি আপনার কাজের বর্ণনা ওয়েবসাইটে দিয়ে রাখলে কারোর ওই ধরণের সেবা দরকার হলে আপনার সাথে যোগাযোগ করবে এবং আপনি ইনকাম করতে পারবেন।

বিভিন্ন ক্লায়েন্ট পোর্টফোলিও পছন্দ করে কারন তারা দেখতে চায় আপনি কতটা স্কিলফুল তারপর কাজ দেওয়া প্রতি বিশ্বাস তৈরি হয়।

তাই আপনি পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট তৈরি করে ফ্রীল্যান্সিং করেও ইনকাম করতে পারবেন।

ওয়েবসাইটে বই বিক্রি করে ইনকাম করতে পারবেন

যদিও এখন বই সবাই কম পড়ে। তবে বই পড়ার কিন্তু অভাব নেই। এখন সবাই পিডিএফ কিনে থাকে। 

আপনার নিজের প্রকাশ করা যদি কোনো বই থাকে তবে তা সুন্দর করে সেল অর্ডার নিতে পারবেন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে।

আপনার ওই বই এর যদি পিডিএফ কপি থাকে ওটাও বিক্রি করতে পারবেন আর হার্ড কপি এর জন্য অর্ডার নিতেও পারবেন।

মেম্বারশীপ বিক্রি করেও ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ইনকাম করতে পারবেন

যদি এমন কোনো সার্ভিস আপনার দেওয়া সম্ভব হয়। যা সবাই প্রতিনিয়ত দেখতে বা এক্সেস পেতে পছন্দ করে। যেমন, মুভি, নাটক, সহ অনেক ধরণের ডিজিটাল প্রোডাক্ট যেমন envato elements এর মতো। 

এমন কিছু যদি আপনার সম্ভব হয় তাহলে আপনি মেম্বারশীপ বিক্রি করেও ইনকাম করতে পারবেন। 

মেম্বারশীপ এর আয় প্রতি মাসে আসতে থাকে যার কারণে ইউজার আকর্ষন রাখতে ওয়েবসাইট নিয়ম আপডেটেড রাখতে হয়।

রেডিমেট ওয়েবসাইট তৈরি করে বিক্রি করার মাধ্যমে আয়

অনেকে একটা ওয়েবসাইট পুরোপুরি রান করে তা ব্যবহার উপযোগি করে বিক্রি করতে থাকে এতে যে কিনবে তার অনেক কাজ এগিয়ে যায়।

অনেকে এমন রেডিমেড ওয়েবসাইট পছন্দ করে থাকে। আপনি যদি ওয়েব ডিজাইন বা ওয়েব ডেভলপেমেন্ট পারেন তবে আপনি সুন্দর ভাবে এই কাজটিও করতে পারবেন।
আপনি ওয়েবসাইট বানিয়ে flippa.com এ সেল করতে পারবেন।


ওয়েবসাইট খুলে টাকা আয় করা জন্য ওয়েবসাইট তৈরি

আপনি যদি চান আপনি এমন কোনো সার্ভিস নিয়ে কাজ করবেন আর আপনার যদি কোনো ওয়েবসাইট না থাকে তবে ওয়েবসাইট বানাতে পারবেন খু্ব সহজে।

ওয়েবসাইট বানাতে আপনার দরকার দক্ষ ওয়েব ডেভলপার। দক্ষ ডেভলপার ছাড়া ওয়েবসাইট বানালে কিছুদিনের মধ্যে ওয়েবসাইটে বিভিন্ন প্রকার সমস্যা দেখা দেয় যার কারণে বিজনেস শুরু হওয়ার আগেই ভেঙ্গে পড়তে হয়।

যেখানে আপনার আসল হল ওয়েবসাইট তা তো ভালো করেই বানাতে হবে।

তাই আপনি যেকোনো প্রকার ওয়েবসাইট বানাতে চাইলে যোগাযোগ করতে পারেন ওয়েবমাস্টার সম্রাট রাইহান এর সাথে। 

আপনার ওয়েবসাইট সুন্দর করে কাজ করিয়ে নিয়ে আয় শুরু করুন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে।

চাইলে তার সাথে সরাসরি ফোনে যোগায়োগ করতে পারেন, ফোনঃ 01645491118

আপনার ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম করার পথ সুগম হোক।



ওয়েবসাইট খুলে কিভাবে টাকা আয় করা যায় এই আর্টিকেল টি পুরোটা পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ, এই আর্টিকেল যদি বুঝতে অসুবিধা হয় অথবা কোনো প্রশ্ন থাকে তবে কমেন্ট করুন, আশা করি আপনি উত্তর পাবেন।আর নতুুন কিছু জানার থাকলে আমাদের জানান আমরা জানানোর চেস্টা করবো। এই আর্টিকেলটি WikiJana.Com সাইটের সম্পদ তাই যদি কেউ কপি করেন তবে আপনারা অবশ্যই ক্রেডিট দিবেন নয়ত আপনার সাইট কপিরাইটের অধিনে চলে যেতে পারে।





WikiJana Desk

You can decorate your life more nicely through this site. Learn more Learn to teach others.We always try to tell and teach you something new. We believe that if we do not receive education, we must teach it. If you like our work, stay tuned.